অনলাইনে ছবি বিক্রি করে টাকা ইনকাম করুন? Step By Step Guide

এমনিতে, Internet থেকে টাকা আয় করার বিভিন্ন উপায়, আমি আপনাদের এই ব্লগে বলে এসেছি। এর মধ্যেই, ফটোগ্রাফি করে অনলাইন টাকা আয় করার একটি বিশেষ সুযোগ এর ব্যাপারে আমি আজ আপনাদের বলবো। (Make money by selling pictures online?).

আপনি কি নিজের মোবাইল ফোনে বা ক্যামেরাতে, ছবি তুলতে ভালো পান ?

আপনি কি, নিজের আসে পাশে থাকা বিষয় গুলি নিয়ে ছবি উঠিয়ে আনন্দ অনুভব করেন ?

তাহলে,

হতে পারে ছবি তোলা আপনার একটি “প্যাশন (passion)“, এবং এই ছবি তোলার প্যাশন টিকেই বানিয়ে নিতে পারবেন “লাভজনক অনলাইন ইনকামের মাধ্যম”.

হে, আপনি অনলাইনে ছবি বিক্রি করে টাকা আয় করতে পারবেন।

আপনার তোলা প্রত্যেকটি ছবি, অনেক সহজে আপনাকে টাকা আয় করে দিতে পারবে।

এই ক্ষেত্রে, অনেক ভালো ব্যাপার এটাই যে, এখানে আপনার কোনো বিশেষ ধরণের অভিজ্ঞতা, দক্ষতা বা প্রশিক্ষনের প্রয়োজন নেই।

অবশই, ক্যামেরা এবং ফোটোগ্রাফি নিয়ে সাধারণ অভিজ্ঞতা থাকাটা জরুরি, যদি আপনি ভালো মানের ছবি তুলতে চাচ্ছেন।

তাছাড়া, এভাবে ছবি তুলে অনলাইন টাকা আয় করার জন্য, আপনার কোনো ধরণের অনলাইন ওয়েবসাইট বা কোম্পানি তৈরি করার কোনো প্রয়োজন হবেনা।

তাই, যতদিন আপনি ভালো কোয়ালিটির এবং অসাধারণ ছবি তুলতে থাকবেন, যেখানে ভাল lighting, color এবং ভালো ভালো natural moments এর মিশ্রণ থাকবে, ততদিনি ভালো পরিমানে টাকা আয় করতে পারবেন।

শেষে, যেকোনো অন্য কাজের মতোই, অভিজ্ঞতা এবং কাজের জ্ঞানের সাথে সাথে, যতটা বেশি ভালো জোগাড় (camera) এবং ভালো উপকরণ আপনার কাছে থাকবে, ততটাই ভালো হবে আপনার ছবি।

এবং তার সাথেই, আপনার "অনলাইনে ছবি বিক্রি করে টাকা আয়" করার সুযোগ দুগুণ হয়ে উঠবে।

Also Read;-


অনলাইনে ছবি বিক্রি করে কিভাবে টাকা ইনকাম  করবেন ?

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে টাকা ইনকাম

এমনিতে, ইন্টারনেটে বিভিন্ন মাধ্যম রয়েছে, যেগুলি ব্যবহার করে আপনারা নিজে তোলা ছবি গুলি দিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

তবে, আমি আজ এই আর্টিকেলে কেবল লাভজনক এবং যেই মাধ্যম ব্যবহার করে অনেক ফটোগ্রাফাররা অনলাইন ইনকাম করছেন, সেই বিশেষ মাধমের বিষয়ে বলবো।

এবং, এই মাধ্যমটি  হলো, অনলাইন স্টক ইমেজ ওয়েবসাইট ?


এই ক্ষেত্রে, বিভিন্ন কোম্পানি, ব্লগার, ফ্রিল্যান্সাররা এবং অনলাইন বিসনেস গুলি, অনলাইন কনটেন্ট, brochures, বিজ্ঞাপন (advertisement) এবং অন্য অনেক কাজের জন্য “স্টক ইমেজ” (stock image) ব্যবহার করেন।

এই ধরণের স্টক ইমেজ (stock images) ব্যবহার করার ফলে, তাদের একটি photographer ভাড়া নিয়ে photo shoot করার খরচ বেঁচে যায় (যেটা অনেক বেশি).

এখন, এই স্টক ইমেজ (stock images) গুলি, আমার এবং আপনার মতো লোকেরা “স্টক ইমেজ ওয়েবসাইট” গুলিতে আপলোড করতে পারবেন।

যখনি কেও আপনার আপলোড করা ছবি stock image website গুলির থেকে কিনে নিবে, তখন সেই ছবি ব্যবহার করার সম্পূর্ণ অধিকার তাকে দিয়ে দেয়া হবে।

তার সাথে সাথে, আপনিও কিছু পরিমানে টাকা অবশই পেয়ে যাবেন।

এবং এভাবেই, কিছু লাভজনক ও জনপ্রিয় স্টক ইমেজ ওয়েবসাইট গুলিতে ছবি আপলোড করে টাকা আয় করাটা একটি লাভজনক অনলাইন ব্যবসা হয়ে দাঁড়িয়েছে।

স্টক ইমেজ ওয়েবসাইটে ছবি কিভাবে বিক্রি করবেন ?

আপনি যেই stock image website এ, ছবি আপলোড করে অনলাইন টাকা আয় করার কথা ভাবছেন, সেই ওয়েবসাইটে গিয়ে “Affiliate Program“, “Submit image” বা “Sell your image” বলে অপসন খুঁজতে হবে।
স্টক ইমেজ ওয়েবসাইটে ছবি কিভাবে বিক্রি করবেন ?

এখন, এই ধরণের অপসন পেয়ে যাওয়ার পর, করতে হবে একটি নতুন “account registration“.

একাউন্ট রেজিস্টার স্বাভাবিক ভাবেই করতে হবে, যেখানে আপনার নাম, contact details এবং কিছু অন্য তথ্য নেয়া হবে।
একাউন্ট রেজিস্টার
এভাবে, একটি ফ্রি একাউন্ট তৈরি করার পর, আপনি আপনার নিজের তোলা ছবি গুলি “stock image website” গুলিতে আপলোড করতে পারবেন।

এখন, যখনি কোনো user আপনার আপলোড করা কোনো ছবি ডাউনলোড করে নিবে, আপনাকে সেই ইমেজ ওয়েবসাইট থেকে কিছু টাকা দেয়া হবে।

তাহলে, ইমেজ ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ছবি বিক্রি করার জন্য, আপনার সেই ওয়েবসাইটে, প্রথমে রেজিস্টার করে একাউন্ট তৈরি করতে হবে।

এবং, তারপর নিজের ছবি গুলো আপলোড করতে হবে।

অনলাইন ছবি বিক্রি করে কত টাকা  ইনকাম করতে পারবেন ?

এই প্রশ্নের উত্তর বিভিন্ন জিনিসের ওপরে নির্ভর করে।

আপনি কি প্রত্যেক সপ্তায় নিয়মিত ভাবে ছবি আপলোড করছেন ?

আপনার একাউন্টে কি অনেক বেশি পরিমানে ছবি আপলোড করা আছে ?

কারণ, প্রত্যেক ছবির ওপরে আপনাকে কতটা টাকা দেয়া হবে, সেটার ওপরেই নির্ভর করবে আপনার মোট আয়ের পরিমান।

এবং, সেটা ঠিক করবে “STOCK IMAGE WEBSITE” টি, যেখানে আপনি টাকা আয়ের উদ্দেশ্যে ছবি আপলোড করেছেন।

তবে, প্রায় অনেক ভালো এবং পপুলার ওয়েবসাইট, আপনাকে প্রত্যেক ছবির বিক্রিতে প্রায় $0.25 থেকে $0.35 র মধ্যে টাকা দিবে।

হে, অনেক কম পরিমানে টাকা দেয়া হচ্ছে যদিও, মনে রাখবেন যে, আপনার প্রত্যেকটি ফটো বা ছবি বার বার বিক্রি হতে থাকবে।

তাই, যতবার আপনার আপলোড করা অন্য অন্য বা একি ছবি বিক্রি হবে এবং ডাউনলোড করা হবে, আপনাকে ততবার টাকা দেয়া হবে।

তাই, অনলাইন ছবি বিক্রি করে মাসে কত টাকা আয় করা যাবে, এই প্রশ্নের উত্তর নির্ভর করবে, “আপনি মাসে কতটা ছবি বিক্রি করেছেন” এবং “প্রত্যেক ছবিতে আপনাকে কত টাকা দেয়া হয়েছে”।

এভাবে দেখলে,

আপনি যদি প্রত্যেক দিন ৫০ টি করে ছবি বিক্রি করছেন, এবং প্রতিটি ছবি বিক্রির ফলে আপনাকে $0.25 দেয়া হচ্ছে।

তাহলে, 50*0.25 = $ 12.5, মানে $ 12.5* 71 = 887.5 টাকা প্রত্যেকদিন।

তাই, মাসে আপনার কমেও ইনকাম হচ্ছে, 887.5*30 = 26,625/- টাকা।

তাহলে ভাবুন, যদি প্রত্যেক দিন আপনার ১০০ থেকে বেশি ছবি ডাউনলোড করা হয় এবং প্রত্যেক ছবিতে আরো বেশি করে টাকা দেয়া হয়, তাহলে কতটা ইনকাম আপনার হবে।

এভাবেই, অনেকেই ছবি আপলোড করে সাংঘাতিক ভালো পরিমানে অনলাইন টাকা আয় করে নিচ্ছেন।

টাকা ইনকাম করার জন্য কতটা সময় লাগবে ?

ছবি বিক্রি করে অনলাইন আয় করার জন্য আপনার কিছু সময় অবশই লাগবে।

কারণ, প্রথম অবস্থায় আপনি বেশি পরিমানে ছবি তুলে আপলোড করতে পারবেননা।

তাই, আপনার ছবি বিক্রি বা ডাউনলোড হওয়ার সুযোগ অনেক কম থাকবে।

তবে, কিছু দিন নিয়মিত ভাবে ভালো high quality images তুলে আপলোড করার পর, যখন আপনার একাউন্টে ভালো পরিমানে আলাদা আলাদা বিষয়ে ছবি থাকবে, তখন কিছু পরিমানে আপনার ছবি গুলি বিক্রি হওয়া শুরু হয়ে যাবে।

ফলে, ছবি বিক্রি করে আপনার ইনকাম প্রায় চালু হয়ে যাবে।

তাই, এই মাধ্যমে অনলাইন ইনকাম শুরু হওয়ার জন্য প্রায় ৫ থেকে ৬ মাসের সময় লেগে যেতে পারে।

তবে, আপনি যদি লোকেদের মধ্যে অনেক চাহিদা থাকা এবং ভালো কোয়ালিটির ছবি তুলে আপলোড করতে পারেন, তাহলে অনেক কম সময়ের মধ্যেই ইনকাম শুরু হওয়ার সুযোগ রয়েছে।

আপনার আপলোড করা ছবি কে কিনবে ?

আমি ওপরেও বলেছি যে, আজ ইন্টারনেট এবং ডিজিটাল মার্কেটিং এর সময়।

এবং, এই ক্ষেত্রে বিভিন্ন কোম্পানি, ব্লগার, ওয়েবসাইটের মালিক বা অনলাইন ম্যাগাজিন কোম্পানি গুলি কন্টেন্ট প্রমোশন, মার্কেটিং, বিজ্ঞাপন (advertisement) এবং আরো অন্যান্য ক্ষেত্রে, এই ধরণের স্টক ইমেজ গুলি কিনে ব্যবহার করেন।

তাই, তারাই আপনার ছবি গুলি কেনার চাহিদা রাখবেন।

অবশই, ইন্টারনেটে অনেক ফ্রি ইমেজ ওয়েবসাইট রয়েছে, যেগুলির থেকে ফ্রীতে ছবি ডাউনলোড করে ব্যবহার করা যাবে।

তবে, হাজার হাজার এরকম অনেক ব্লগ বা কনটেন্ট রাইটার রয়েছেন, যারা নিজেদের কনটেন্ট বা আর্টিকেল গুলিতে একটি প্রিমিয়াম ও ভালো কোয়ালিটির ছবি ব্যবহার করেন।

তাই, আপনি যদি অনেক ভালো এবং হাই কোয়ালিটির ছবি দিতে পারেন, তাহলে অবশই এই ধরণের বিভিন্ন ব্লগার, কনটেন্ট রাইটার বা কোম্পানি গুলি, “ইমেজ ওয়েবসাইট” গুলির মাধ্যমে, আপনার আপলোড করা ছবি কিনে নিবেন।

আপনার তোলা ছবি গুলি এরকম হতে হবে যে, দেখেই লোকেরা যাতে আকর্ষিত হয়ে যায়।

সেরা ৬ স্টক ইমেজ ওয়েবসাইট এর নাম?
তাহলে চলুন, এখন আমরা আমাদের আসল বিষয় নিয়ে কথা বলি।

যদি আপনি নিজের মোবাইল বা ক্যামেরা দিয়ে ভালো ভালো ছবি তুলে টাকা আয় করার কথা ভাবছেন, তাহলে নিচে দেয়া স্টক ফটো ওয়েবসাইট গুলিতে গিয়ে, নিজের ছবিগুলি অনলাইন বিক্রি করে আয় করতে পারবেন।

১. Adobe Stock 
Adobe stock, অনেক নামকরা এবং অনলাইন লোকেদের মধ্যে প্রচলিত এমন একটি পোর্টাল, যেখানে আপনি আপনার তোলা ছবি গুলি অনেক সহজেই আপলোড করে বিক্রি করাতে পারবেন।

Adobe stock, অনেক নামকরা এবং অনলাইন লোকেদের মধ্যে প্রচলিত এমন একটি পোর্টাল, যেখানে আপনি আপনার তোলা ছবি গুলি অনেক সহজেই আপলোড করে বিক্রি করাতে পারবেন।

এই ওয়েবসাইটে, বিভিন্ন দেশ (country) এবং জায়গার থেকে প্রত্যেক দিন, হাজার হাজার লোকেরা ভিজিট করেন, বিভিন্ন রকমের premium images কেনার জন্য।

তাই, আপনি যেকোনো জায়গার থেকে হতে পারেন, যদি আপনার ছবি গুলি লোকেদের পছন্দ হয়, তাহলে ঘরে বসে অনলাইন ইনকাম করার এটা অনেক ভালো একটি সুযোগ হয়ে দাঁড়াবে।

এখানে, নিজের ছবি ও ভিডিও বিক্রি করা অনেক সহজ।

আপনার কেবল, একটি ফ্রি একাউন্ট তৈরি করে নিতে হবে।

তারপর, এক এক করে নিজের ছবি বা বানানো ভিডিও গুলি আপলোড করে নিতে হবে।

ব্যাস, এখন যতবার আপনার আপলোড করা ছবি লোকেদের দ্বারা কেনা হবে, আপনাকে ৩৩% কমিশন (commission) প্রত্যেক বিক্রিতে দেয়া হবে।

আয় করা টাকা, আপনারা PayPal এর মাধ্যমে তুলে নিতে পারবেন।

ছবি বিক্রি করে আয় করার জন্য, সোজা এখানে একটি “contributor account” তৈরি করে নিতে হবে।

ছবি বিক্রি করে আয় করার জন্য, সোজা এখানে একটি “contributor account” তৈরি করে নিতে হবে।

তাছাড়া, তাদের online tutorial দেখে, আপনারা সম্পূর্ণ পদ্ধতি বুঝে যাবেন।

Contributor account তৈরি করার পর, আপনারা নিজের তোলা ছবি গুলি সেখানে এক এক করে আপলোড করা শুরু করতে পারবেন।

নিয়ম অনুযায়ী, আপনার আপলোড করা ছবি গুলি রিভিউ (review) করা হবে।

যদি আপনার ছবি গুলি Bigstock ওয়েবসাইটের তরফ থেকে তাদের image collections এ যোগ করে দেয়া হয়, তাহলে ভাববেন, আপনার ছবি গুলি এখন জেকেও কিনে নিতে পারবে।

আপনাকে, প্রত্যেক ছবি ডাউনলোড এর ওপরে টাকা দেয়া হবে।

তাছাড়া, type of payment plan এবং image size এর ওপরেও আপনার ইনকাম নির্ভর করবে।

আপনার প্রত্যেক ছবি ডাউনলোড এর বিপরীতে আপনাকে প্রায় $0.25 – $3.00 ভেতরে টাকা দেয়া হবে।

অনলাইনে ছবি বিক্রি করার জন্য, shutterstock অনেক নামকরা একটি premium stock image website.

অনলাইনে ছবি বিক্রি করার জন্য, shutterstock অনেক নামকরা একটি premium stock image website.

প্রত্যেকদিন, প্রায় লক্ষ লক্ষ online marketer এবং content writer গুলি, তাদের কন্টেন্টের জন্য premium এবং high quality images খোঁজার জন্য এখানে আসেন।

এবং, shutterstock website আজ অব্দি তার high quality images এবং লোকেদের চাহিদা পূরণ করার মতো ছবি দেয়ার জন্য অনেক প্রচলিত।

এখানে আপনাকে, client এর subscription plans এর ওপরে টাকা দেয়া হয়।

ওয়েবসাইটটি বলা মতে, আপনি আপনার প্রত্যেক ছবির ডাউনলোডের ওপরে $120 অব্দি টাকা আয় করে নিতে পারবেন।

তবে, একজন contributor হিসেবে, আপনার ছবির বিক্রির প্রায় ২০% থেকে ৩০% মধ্যে আপনাকে দেয়া হবে।

এবং, আয় করা সম্পূর্ণ টাকা আপনাকে মাসে মাসে (monthly), shutterstock এর দ্বারা দেয়া হবে।

তাই, shutterstock থেকে আয় করাটা আপনার জন্য অনেক লাভজনক ব্যাপার হতে পারে, যদি আপনি একজন ভালো ফটোগ্রাফার।

৪. Alamy.com
Alamy ওয়েবসাইটে contributor account তৈরি করে, অনেক সহজেই নিজের ছবি গুলি আপলোড করতে পারবেন।

Alamy ওয়েবসাইটে contributor account তৈরি করে, অনেক সহজেই নিজের ছবি গুলি আপলোড করতে পারবেন।

এবং, এখানে প্রত্যেক ছবি বিক্রির ফলে আপনাকে বিক্রির ৪০% থেকে ৫০% মধ্যে ইনকাম দেয়া হবে।

আয় করা টাকা, আপনাদের একসাথে প্রত্যেক মাসের প্রথম তারিখে (working day) দিয়ে দেয়া হয়।

যখন আপনার contributors account এ, টোটাল $50 এর ইনকাম হয়ে যায়, তখন PayPal বা Fund transfer এর মাধ্যমে টাকা আপনাদের দেয়া হয়।

Fotolia হলো Adobe stock এর একটি আলাদা সার্ভিস। এখানে আপনাকে ভালো commission rate দেয়া হয়।

Fotolia হলো Adobe stock এর একটি আলাদা সার্ভিস। এখানে আপনাকে ভালো commission rate দেয়া হয়।

এখানে আপনারা ২০ থেকে ৬০% ভেতরে কমিশন ইনকাম করতে পারবেন।

Istockphoto হলো অনেক নামকরা এবং বিখ্যাত একটি micro stock channel, যেখানে আপনি আপনার ফটো গুলি বিক্রি করার উদ্দেশ্যে আপলোড করতে পারবেন।

Istockphoto হলো অনেক নামকরা এবং বিখ্যাত একটি micro stock channel, যেখানে আপনি আপনার ফটো গুলি বিক্রি করার উদ্দেশ্যে আপলোড করতে পারবেন।

তবে, একজন contributor হিসেবে এখানে join করার আগে, আপনাকে ৩ টি ছবি আপলোড করতে হবে, যেগুলি Istockphoto team এর দ্বারা ভেরিফাই করা হবে।

iStockphoto র, যদি আপনার আপলোড করা ফটো ভালো লেগে থাকে, তাহলে আপনাকে একজন contributor হিসেবে বেঁচে নেয়া হবে।


তারপর, আপনি আপনার বাকি ছবি আপলোড করে টাকা আয় করা শুরু করতে পারবেন।

ছবি আপলোড করে অনলাইন ইনকাম করাটা কতটা লাভজনক ?

আমি জানি, অনলাইন টাকা আয় করার বেপারটা শুনে আপনারা অনেক আনন্দিত হয়ে যান।

তবে, মনে রাখবেন, অনলাইন ছবি বিক্রি করে টাকা আয় করাটা কিন্তু সবাইর পক্ষে সম্ভব নয়।

কারণ, একটি ছবি লোকেরা তখন কিনবে যখন সেই ছবি দেখতে অনেক আকর্ষণীয় হবে, ছবিটির কোয়ালিটি অনেক ভালো হবে এবং ছবিতে থাকা বিষয়টি অনেক ভালো ভাবে তোলা হবে।

এবং, এই সব জিনিস গুলি করাটা সবাইর পক্ষে সম্ভব নয়।

Premium image website গুলিতে, এমনিতে অনেক ভালো ভালো ফটোগ্রাফার রা ছবি আপলোড করেন।

তাই, আপনি যদি চাচ্ছেন যে আপনার ছবি গুলি লোকেরা কিনোক, তাহলে আপনার ছবির কোয়ালিটিও একজন প্রফেশনাল ফটোগ্রাফার এর মতোই হতে হবে।

তাছাড়া, প্রায় সব ধরণের stock image website, লো কোয়ালিটি (low quality) ছবি তাদের পোর্টালে approve করেনা।

তাহলে শেষে, আমি এতটুকুই বলবো যে, আপনি যদি ছবি তুলে ভালো বসেন, ছবি তোলা যদি আপনার প্যাশন হয়ে থাকে এবং অনেক ভালো ভালো কোয়ালিটির ছবি আপনি তুলছেন, তাহলে অনলাইনে ছবি বিক্রি করার এই মাধ্যম অবশই আপনার জন্য লাভজনক।

কিন্তু, যদি আপনি কেবল টাকা আয়ের উদ্দেশ্যে, এই কাজ শুরু করার কথা ভাবছেন এবং সেটাও ফোটোগ্রাফিতে কোনো যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা ছাড়া, তাহলে খুব সম্ভব আপনার কেবল সময় নষ্ট হবে।

মোবাইল ফটোগ্রাফি করে আয়,Shutterstock থেকে আয়,টাকা ইনকাম করার ওয়েবসাইট,ফটোগ্রাফি বিক্রি,ছবি বিক্রয়,ক্লিক করে টাকা আয় করুন
Guys, If You Need Font Copy And Paste For Instagram ,Twitter ,Fb Like Other Social Media So Click Here this Link.

1 Comments

By commenting you acknowledge acceptance of Whatisloved.com-Terms and Conditions

  1. You really are a genius, I feel blessed to be a regular reader of such a blog Thanks so much Definition of love

    ReplyDelete

Post a Comment

By commenting you acknowledge acceptance of Whatisloved.com-Terms and Conditions

Post a Comment

Previous Post Next Post