বাংলা কিবোর্ড | মোবাইলের বাংলা টাইপিং অ্যাপস ডাউনলোড ।

বাংলা কিবোর্ডঃফ্রেন্ডস,এখন আমরা স্মার্টফোনের মধ্যে যেকোনো ভাষায় টাইপিং করতে পারি,কিন্তু এক দশক আগে মোবাইলে বাংলা টাইপ করা প্রায় অসম্ভব ছিল। তবে বতর্মানে উন্নত টেকনোলজির বিকাশ হওয়াতে বাংলা টাইপ থেকে ভয়েস টাইপিং সব কিছুই সম্ভব। তাই,আমি আজ দুটি (বাংলা কিবোর্ড app) শেয়ার করবো যার সাহায্যে সহজে মোবাইলে বাংলা টাইপ করতে পারেবন।


বন্ধুগণ,স্মর্টফোনে বাংলা লিখতে অনেক মানুষকে সমস্যাই পড়তে হয়।তাই সেই সমস্যার কথা মাথাই রেখে  আপনাদের কাছে কিছু সেরা [বাংলা টাইপিং এপপ্স] বা কিবোর্ড সাজেস্ট করবো। 

    আপনারা এই কিবোর্ড গুলি দিয়ে আপনি যেকোনো এন্ড্রোইড ও ios app এর মধ্যে খুব সহজে বাংলা টাইপ করতে পারবেন। উধারণসরূপ- আপনি মোবাইলে হোয়াটস্যাপ,ফেসবুক,গুগল ইত্যাদি এন্ড্রোইড ও ios app এর মধ্যে এই কীবোর্ড use করে খুব সহজে বাংলা টাইপ করতে পারবেন।


    তাহলে চলুন দেরি নাকরে জেনেনি সেই "বাংলা লেখার সেরা কীবোর্ড " গুলির সম্পর্কে।

     

    মোবাইলে বাংলা কিবোর্ড ডাউনলোডঃ

    বাংলা কিবোর্ডঃফ্রেন্ডস,এখন আমরা স্মার্টফোনের মধ্যে যেকোনো ভাষায় টাইপিং করতে পারি,কিন্তু এক দশক আগে মোবাইলে বাংলা টাইপ করা প্রায় অসম্ভব ছিল। তবে বতর্মানে উন্নত টেকনোলজির বিকাশ হওয়াতে বাংলা টাইপ থেকে ভয়েস টাইপিং সব কিছুই সম্ভব। তাই,আমি আজ দুটি (বাংলা কিবোর্ড app) শেয়ার করবো যার সাহায্যে সহজে মোবাইলে বাংলা টাইপ করতে পারেবন।

    বাংলা কিবোর্ড apps:-মোবাইলে বাংলা লেখার বিভিন্ন অ্যাপ আছে যেগুলো আপনি প্লেস্টোরে পেয়ে যাবেন। তবে আমি যে কীবোর্ড দুটি আপনাদের রেকমেন্ড করবো সেটি সব থেকে বেশি ব্যবহিত,জনপ্রিয় কীবোর্ড app।
    শুধু তাইনা,আমি নিজের মোবাইলে এই কিবোর্ড দুটিকে ব্যবহার করেছি,এবং এই আর্টিকেলেটি সেই কীবোর্ড ইউজ করেই লিখছি। এখানে আমরা যে দুটি কীবোর্ড সম্পর্কে জানবো সেটি হচ্ছে –
    1. Google Indic Keyboard
    2. Ridmik Keyboard

    এই কীবোর্ড app দুটি প্লেস্টোরে এর মধ্যে কোটি কোটি বার ডাউনলোড হয়েছে এথেকে বুঝা যাই কতটা পপুলার। এছাড়া এই কীবোর্ড দুটির রিভিউ ও রেটিং খুব ভালো আছে। তাই আমি এই পোস্টে গুগল ও (রিডমিক কীবোর্ড) কে বেঁছে নিয়েছে,যাদের সম্পর্কে নিচে বিস্তারিত জানবো। 

    Google Indic Keyboard (বাংলা কিবোর্ড)

    গুগল কিবোর্ড:-পৃথিবীর মধ্যে সব থেকে বেশি ব্যবহিত ও জনপ্রিয় কীবোর্ড হচ্ছে গুগল কীবোর্ড।আপনি যদি এক জন ক্যাজুয়াল ইউসার হন(বাংলা তে চ্যাট বা ম্যাসেজ করতে চান) তাহলে আপনি বিনা দ্বিধায় এই কীবোর্ড টি ইনস্টল করতে পারেন।

    গুগল কিবোর্ড:-পৃথিবীর মধ্যে সব থেকে বেশি ব্যবহিত ও জনপ্রিয় কীবোর্ড হচ্ছে গুগল কীবোর্ড।আপনি যদি এক জন ক্যাজুয়াল ইউসার হন(বাংলা তে চ্যাট বা ম্যাসেজ করতে চান) তাহলে আপনি বিনা দ্বিধায় এই কীবোর্ড টি ইনস্টল করতে পারেন।

    গুগল কীবোর্ড ফাস্ট,সিকিউর ও ব্যবহার করা খুব সহজ। Google indic কিবোর্ডের সাহায্যে বাংলা ছাড়া অনেক ভাষা পাওয়া যায়। যেমন এখানে তামিল,তেলেগু,গুজরাটি আরও বিভিন্ন ভাষাতে টাইপ করতে পারেবন।

    এছাড়া এরমধ্যে আরো কিছু স্পেশাল ফীচার দেখা যায় যেগুলি সাধারণত অন্য কীবোর্ড এ দেখা যায়না,এই সব নানান কারণে গুগল কীবোর্ড ইউসার দেড় প্রথম চয়েস হয়ে উঠছে।

    (বাংলা কিবোর্ড) মোবাইলে বাংলা লেখা নিয়ম টি দেখে নিন?


    নিজের এন্ড্রোইড ফোনে Google Indic কীবোর্ড app টি আপনাদের play store থেকে ডাউনলোড করতে হবে। 

    তাই,নিচের দেওয়া লিংক থেকে Google Indic কীবোর্ড app টি ইনস্টল করেনিন।

    Download Google বাংলা কিবোর্ড-👈



    মোবাইলে এই কীবোর্ডটি এক্টিভ করার জন্য,আপনি এই স্টেপ গুলি ফলো করুন –

    app ইনস্টল হওয়ার পর কীবোর্ড টি ওপেন করুন। enable in settings অপসন সিলেক্ট করে Google Indic কীবোর্ড অপসন কে turn on করুন এবং অন্য গুলকে বন্ধ করেদিন। 

    এবার ব্যাক এ এসে input method অপসন সিলেক্ট করে English & indic languages ভাষা টি সিলেক্ট করুন। তারপর select input language এর মধ্যে অনেক গুলি languages দেখতে পাবেন সেখানে use system language disable বা বন্ধ করেদিন।

    এবার নিচে আপনি Bengali & English ভাষা টি সিলেক্ট করে turn on করেদিন।বাস্ আপনার Google Indic কীবোর্ড এক্টিভ হয়ে যাবে। 

    Ridmik Keyboard – Best বাংলা কিবোর্ডঃ

    রিডমিক কীবোর্ড:-বাংলা লেখার আর একটি খুবি জনপ্রিয় কীবোর্ড হচ্ছে রিডমিক কীবোর্ড। এটি বাংলা phonetic keyboard ঠিক আগে আলোচনা করলাম গুগল Indic কীবোর্ড এর মতো। এর লেআউট খুব সুন্দর,ধীরে ধীরে আমাদের মাইন্ড এর মধ্যে গেঁথে যাই ফলে দ্রুত টাইপ করা সম্ভব হয়।

    রিডমিক কীবোর্ড:-বাংলা লেখার আর একটি খুবি জনপ্রিয় কীবোর্ড হচ্ছে রিডমিক কীবোর্ড। এটি বাংলা phonetic keyboard ঠিক আগে আলোচনা করলাম গুগল Indic কীবোর্ড এর মতো। এর লেআউট খুব সুন্দর,ধীরে ধীরে আমাদের মাইন্ড এর মধ্যে গেঁথে যাই ফলে দ্রুত টাইপ করা সম্ভব হয়।

    এছাড়া আপনি (রিডমিক কীবোর্ড) এর মধ্যে Voice input ও emoji এর সুবিধা পাবেন। playstore এর মধ্যে এই app টি 10M বার ডাউনলোড করা হয়েছে ও এর প্রায় 4.4 star rating আছে। নিচে এর কিছু ফীচার সম্পর্কে বর্ণনা করা হলো-
    • Bangla phonetic keyboard (like your favorite Avro keyboard)
    • National & Probhat layout
    • Full set of emoji
    • Voice input
    • New themes
    • Next word suggestion
    • Improved suggestions
    • Emoji in suggestions
    Ridmik Keyboard এর ২টি ভার্সন আছে Ridmik Classic ও normal। আমরা এখানে Ridmik নর্মাল কীবোর্ড নিয়ে আলোচনা করছি। তাই ,এই কীবোর্ড টি মোবাইলে এর মধ্যে ইন্সটল করতে হলে ,নিচে এর playstore এর লিংক দেওয়া হলো-

    Download Ridmik Keyboard


    রিডমিক কীবোর্ড  কিভাবে বাংলা লিখবেন?

    মোবাইলে এই কীবোর্ডটি এক্টিভ করার জন্য,আপনি এই স্টেপ গুলি ফলো করুন-

    Atfirst -উপরের দেওয়া লিংক থেকে এই কীবোর্ড টি ইনস্টল করুন।ইনস্টল হয়েগেল app টি ওপেন করুন। দেখুন বাংলাতে লেখা আছে ”সেটআপ শুরু করুন” সেখানে ক্লিক করার পর এই কীবোর্ড এক্টিভ করতে ৩ টি ছোট স্টেপ পার করতে হবে। 

    ১) প্রথমে, যেখানে “নিচে সেটিং অন করুন” লেখা আছে ওখানে টাচ করে কীবোর্ড সেটিং থেকে মোবাইলের টাইপিং কীবোর্ড ওর জন্য ridmik keyboard কে সিলেক্ট করে turn on করুন। এবং বাকি keyboard গুলো off করেদিন।

    ২) এবার ব্যাক  এ গিয়ে ridmik keyboard এর সেটিং থেকে অভ্র,প্রভাত ও জাতীয় এই লেআউট গুলি নিচের সুবিধেও ইচ্ছে অনুসারে বেঁছে নিন।

    বাস এবার আপনি এই কিবোর্ড দিয়ে মোবাইলে খুব সহজে বাংলা লিখতে পারবেন।

    শেষ কথা,


    বন্ধুগণ,মোবাইলে বাংলা কিবোর্ড এর জন্য আমি উপরের যে দুটি app আপনাদের রেকমেন্ড করলাম এগুলি সেরা ও সহজ বাংলা কিবোর্ড

    তবে আপনি যদি এই কিবোর্ড গুলি আগে ব্যবহার করে থাকেন তাহলে আরো কিছু app আপনাদের সাজেস্ট করতে পারি,তবে এই app গুলি আমি নিজে use করেনি তাই উপরে রেকোমেন্ড করেনি।

    Guys If You Need Font copy and paste For fb page click here

    By commenting you acknowledge acceptance of Whatisloved.com-Terms and Conditions

    Post a Comment

    By commenting you acknowledge acceptance of Whatisloved.com-Terms and Conditions

    Post a Comment (0)

    Previous Post Next Post