অল্প টাকার ব্যবসা শুরু করার আগে ৫টি চালাকি জেনে নিন।

ছোট বেলা থেকেই আমরা সকলেই একটি কথা সবার মুখে শুনতে শুনতে বড় হয়েছি আর সেটি হলো business(ব্যবসা)করতে অনেক টাকা লাগে আর তা না হলে business করা সম্ভবি নয়।

আবার যখন আমরা এখন বড় হয়েছি তখন যার সাথেই দেখা হয় আর সে যদি ব্যবসা করতে পাচ্ছে না, তাহলে সে আপনাকে এটিই বলবে ভাই business শুরু করবো কী করে? 

ব্যবসা করতে তো অনেক টাকা লাগে,আর আমার কাছে তো টাকাই নাই।আর এভাবে সবার কাছে থেকে এই কথা শুনতে শুনতে আমাদের ব্রেণে এটি  fixed হয়ে গেছে। business করতে অনেক টাকা লাগে। 

টাকা ছাড়া  business করা সম্ভবি নয়।কিন্তু আসল বাস্তবতা কী জানেন?আসল বাস্তবতা হলো ব্যবসা শুরু করতে অল্প কিছু পুঁজির দরকার।

 

আবার কোনো ব্যবসা শুরু করতে কোনো টাকারই প্রয়োজন হয় না। আর সেটি আসলে কীভাবে সম্ভব সেই বিষয়টি নিয়ে আজ ($100 Startup) এই বইটি থেকে কিছু পয়েন্ট আপনাদের কাছে share করবো।

এবং পয়েন্টগুলো আমাদের দক্ষিণ এশিয়ার মানুষগুলোর জীবন-যাপন এবং cultural এর সাথে মিল রেখে কিছু example এর মাধ্যমে আপনাদের বিষয়গুলো share করবো যেন আপনাদের বুঝতে সুবিধা হয়।

অল্প টাকার ব্যবসা শুরু করার আগে ৫টি চালাকি জেনে নিন।

আসা করি এই পোস্টটি পড়ার পর অল্প পুঁজি দিয়ে কীভাবে ব্যবসা শুরু করতে হয় সে বিষয়টি আপনাদের পুরোপুরি ক্লিয়ার হয়ে যাবেন। 

সবার প্রথম একটি ব্যবসা করার জন্য আপনার মাত্র তিনটি জিনিসের দরকার। 

  1. একটি product। 
  2. টাকা পয়সা লেনদেন করার জন্য একটি সহজ মাধ্যম। 
  3. পন্য কেনার জন্য কাস্টমার।

একটা জিনিস খেয়াল করলে দেখবেন আগে আমাদের দেশগুলোর মানুষ অনেক গরীব ছিল।মানে বেশির ভাগ মানুষই কিন্তু গরীব ছিল। তাই যেকোনো product এর ক্ষেত্রে কাস্টমারও অনেক কমই ছিল। 

আর সেই সময় যদি কোনো ব্যবসা শুরু করতে হতো তাহলে ব্যবসার শুরুতে কাস্টমার তৈরি করার জন্য মানে কাস্টমার খোঁজার জন্য সেই কোম্পানিকে শুরুতেই অনেক টাকা invest করতে হতো।

কিন্তু এখন বিষয়টি কিন্তু আর সেরকম নেই। কারণ (পন্য) কেনার জন্য হাজারও মানুষ রয়েছে আামাদের দেশে।

 

এবং অনেক ধনী মানুষ রয়েছে যারা এখন যেকোনো পন্য কেনার জন্য সক্ষম। পাশাপাশি এই ইন্টারনেটের যুগে কাস্টমাররা অনলাইনেও রয়েছে। আপনি চাইলে সেখানেও product sell করতে পারেন। 

তাই এখন আর কাস্টমার খোঁজার জন্য ব্যবসার শুরুতেই যে অনেক ব্যয়টি করতে হতো আগে সেটি এখন আর করতে হয় না।

এরপর ব্যবসার জন্য একটি সহজ টাকা লেনদেনের উপায় দরকার। আগে শুধুমাএ safe money লেনদেনের জন্য একটি কোম্পানিকে কিছু লোক রাখতে হতো এবং তাদেরকে monthly বেশ ভালো পরিমাণ sellery দিতে হতো।

কিন্তু এখন আর সেটি করতে হয় না কারণ এখন ব্যাংকিং সিস্টেম অনেক বেশি উন্নত হয়ে গিয়েছে। এমনকি আমাদের মোবাইল ব্যাংকিং এতো সহজ এবং instant লেনদেন করে আমরা দেশের যেকোনো প্রান্ত থেকে instant টাকা লেনদেন করতে পারি।

সুতরাং এই সেক্টরেও আগে যেখানে টাকা invest করতে হতো এটি কিন্তু এখন আর করতে হয় না।

এরপর রইলো একটি unique product তৈরি করা। ৯০% ব্যবসাই লোকসান হয় এই ভালো মানের পন্য তৈরি করতে না পারায়। 

আর আরো একটি কারণ রয়েছে আপনি যে পন্য টি করছেন সেই পন্য টির বাজারে চাহিদা রয়েছে কী না। এই দুইটির একটি ভুল হলেই ব্যবসা এখানেই শেষ।

 

এর একটি বাস্তব উদাহরণ যদি আপনাদেরকে দেখাই, আপনারা দেখবেন বাজারে বিভিন্ন রকম প্যাকেট Bread পাওয়া যায় এদের মধ্যে দেখবেন একটি বা দুইটি কোম্পানির ব্রেড আমরা সবাই কিনে থাকি আর বাকি কোম্পানির ব্রেডগুলো সে দোকানেই পরে থাকে। 

এখন যাদের ব্রেড মানুষ কিনছে না তাদের ব্রেড এর হয়তো কোয়ালিটি ভালো না অথবা মানুষ যেমন চায় তেমন না। মানে মানুষের এই ব্রেডের দরকারই নেই।

তাহলে এখন আপনি ভাবুন ব্যবসাই কিন্তু ক্ষতি, এই ব্যবসাকে দারা করানোর জন্য ব্রেডের কোয়ালিটি কে improve করতে হবে।আর এর জন্য দরকার হবে টাকার। মানে আপনাকে  একটি ভালো products তৈরি করতে হলে আপনার ব্যবসার শুরুতেই অনেক টাকার প্রয়োজন ছিল। 

মানে আগে কিন্তু একটি ভালো products তৈরি করতে হলে আপনার ব্যবসার শুরুতে অনেক টাকার সেখানে প্রয়োজন ছিল কিন্তু এখন আর এটির দরকার হয় না।

এর কারণ হলো আপনি almost এই পৃথিবীর যেকোনো products সমন্ধে ইন্টারনেটে থেকে তথ্য নিতে পারবেন। পাশাপাশি এখন YouTube এ অনেক ভিডিও ইনফরমেশন রয়েছে আপনি সেখান থেকে দেখেও idea নিতে পারেন।

সুতরাং পন্য ব্যাতিক্রম করার জন্য এখন আর আপনার টাকা পয়সা invest করার প্রয়োজনই নেই। শুধু এই তিনটি জিনিস just easy করে নিন কোনো টাকার প্রয়োজন নেই ব্যবসা এমনিতে setup হয়ে যাবে। 

Area of convergence:

আপনার সেই জিনিসটিকে নিয়ে ব্যবসা করা উচিত যে বিষয়টিতে আপনার ভালো লাগা রয়েছে এবং সে জিনিসটি মানুষেরও প্রয়োজন রয়েছে। একটি উদাহরণ দিচ্ছি তাহলে বিষয়টি আপনারা clear হয়ে যাবেন।

ধরুন আপনি পিৎজা খেতে খুব ভালোবাসেন মানে আপনাকে বলা যেতে পারে একজন পিৎজাখোর। এখন এই যে আপনি পিৎজা খেতে খুব ভালোবাসেন এর জন্য কী আপনাকে কেউ টাকা দিবে?না দিবে না। 

কিন্তু আপনি যদি আপনার জানা পিৎজার টেস্টগুলোকে Analysis করে নিজে একটি ভিন্ন মজাদার টেস্টের পিৎজা তৈরি করে ফেলেন এবং সেটিকে বিক্রি করেন তাহলেই কিন্তু আপনার ব্যবসার সার্তকথা।

এর কারণ হলো আপনি খুব ভালো করেই জানেন কোন টেস্টের পিৎজা খুবই মজা এবং মানুষের খুব পছন্দ হবে।আপনার ভালো লাগা এবং মানুষের প্রয়োজনকে মিলিয়ে একটি পন্য তৈরি করে ফেলুন তাহলেই ব্যবসায় সফলতা।

আমি যদি আমার কথাই আপনাদেরকে বলি আমি অনেক আগে থেকেই “মোটিভেশনাল” পোস্ট প্রচুর পড়ি আর এটিকেই আপনারা দেখুন আমি আমার একটি কাজ বানিয়ে নিয়েছি।

সুতরাং বুঝতেই পারছেন (আমার interest কে কাজে পরিনত করেছি আপনিও আপনার যে বিষয়টিতে interested আপনিও সে বিষয়টিকে একটু carefully business এ পরিণত করে নিন)।ব্যবসায় সফলতা হবেই।

Skill transformation:

আপনার ফ্যাশন যদি হয় পিৎজা খাওয়া এখন এটিকে ব্যবসায়ে পরিণত করতে চান তাহলে এর মাঝখানে আপনাকে কিছু জিনিস শিখতে হবে।মানে পিৎজা বানাতে কী কী লাগে, কীভাবে বানাতে হয় এই বিষয়গুলো আপনাকে খুব ভালোভাবে শিখতেই হবে।

মানে আপনি যদি আপনার interested কে ব্যবসায়ে পরিণত করতে চান তাহলে আপনাকে এটির সাথেসাথে বেশ কিছু skills add করে নিতে হবে তাহলেই businesses সম্ভব।তা নাহলে কিন্তু business সম্ভব নয়।

Add value get freedom:

দেখুন এই পৃথিবীতে কিন্তু ভালোর চেয়ে ভালোর শেষ নেই। তাই আপনি আপনার products এ যত বেশি value add করতে পারবেন আপনার ব্যবসা তত পরিমাণ success হবে এবং save থাকবে।আর পাশাপাশি আপনি চিন্তা মুক্তও থাকতে পারবেন।  সুতরাং বিষয়টি খুব বেশি গুরুত্বপূর্ণ মাথায় রাখতেই হবে।

Features and benefits:

আমরা business এর সময় একটি ভুল করি আমরা কোনো products তৈরি করলেই এর মধ্যে কী কী রয়েছে এগুলো মানুষকে জানানোর চেষ্টা করি কিন্তু এই products টি ব্যবহার করলে মানুষের কী কী উপকার হবে মানে কী কী সুবিধা হবে এগুলো কম জানাতে চাই। 

বা কোনো কোনো ক্ষেত্রে দেখবেন আমরা জানাই না।একটি উদাহরণ দিচ্ছি তাহলেই আপনারা বুঝে যাবেন বড় বড় কোম্পানি এটিকে use করছে।

Face cream এর সকল কোম্পানিকেই দেখবেন face cream কী দিয়ে তৈরি, কী কাজে এটি ব্যবহার করা উচিত,কখন কখন ব্যবহার করা উচিত, কোন কোন কাজে এটি ব্যবহার কর উচিত এরচেয়ে তারা এটিকে বলার চেষ্টা করে এটি ব্যবহারের মাধ্যমে আপনাকে কতোটা সুন্দর দেখাবে।

মানে তারা এই face cream এর benefits কে মানুষের দূর্বলতার সাথে add করে এরো strong ভাবে মানুষকে দেখাচ্ছে। so বুঝতেই পারছেন আপনার products টি মানুষের কেনো দরকার তা খুব ভালোভাবে মানুষকে বুঝাতে হবে। 

আর এ বিষয়টি একটু ব্রেণ খাটিয়ে শিখিয়ে নিবেন। তা না হলে business হয়তো বা হয়ে যাবে কিন্তু অনেক পরিমাণ ভালো হবে না।

By commenting you acknowledge acceptance of Whatisloved.com-Terms and Conditions

Post a Comment

By commenting you acknowledge acceptance of Whatisloved.com-Terms and Conditions

Post a Comment (0)

Previous Post Next Post