নিজেকে পরিবর্তন করার সহজ উপায় (মোটিভেশনাল)

জীবন বদলানোর উপায়ঃতোমার যেমন বেশিক্ষণ জ্ঞান শুনতে ভালো লাগে না, তেমনই অন্য কারোরও বেশিক্ষন জ্ঞান শুনতে ভালো লাগবে না তোমার কাছে থেকে। অনেক কে আমি দেখেছি 

অনেক ছেলেদের আমি দেখেছি তারা স্যান্ডগেন্জি পরে না এবং তারা যখন রাস্তা দিয়ে হাঁটছে তাদের পিঠ পুরো ঘেমে গেছে এবং জামাটা পুরো ভিজে গেছে।

আধা ঘণ্টা কাজ করে একলক্ষ টাকা কামাতে পারবে যদি আজ নিজের জ্ঞান না ব্যবহার করো তাহলে আধঘণ্টা কাজ করে দশ হাজার টাকা কামাতে হবে।

প্রশ্নটা হলো অনেকটা এরকম “নিজেকে কী করে পারফেক্ট বানানো যায়”। আজকের এই পোস্টে আমি ৫ টা এমন টিপস বলবো যেটা দিয়ে তুমি কিভাবে লাইফস্টাইল পরিবর্তন করবে, কিন্তু পুরোপুরি (নিজেকে সংশোধন) করতে পারবে না ফালতু কথা বলবো না। তার কারণ আমরা মানুষ, মানুষ কখনো পুরোপুরি অভ্যাস বদলানোর যায় না।

অবশ্যই পড়ুন-

যতোটা সম্ভব আমি, আমার তরফ থেকে ভালো ভালো টিপসগুলো দিবো এরপর নির্ভর করবে তোমরা তোমাদের জীবনে কতোটা কাজে লাগাবে এবং কাজে লাগিয়ে কতোটা নিজেকে আপডেট করতে পারবে। কোনো কথা না বাড়িয়ে চলে যাবো আমাদের টিপস এ।

নিজেকে কিভাবে পরিবর্তন করবঃ

নিজেকে পারফেক্ট করার উপায়ঃ হতে পারে তুমি কোনো প্রথম date করতে গেছো বা interview দিতে গেছো বা কোনো business মিটিং করতে গেছো বা এমন কারো সাথে দেখা করতে গেছো যার সাথে এর আগে অনেকবার সোশাল মিডিয়ার কথা  হয়েছে কিন্তু রিয়েল লাইভে এই প্রথমবার দেখা। 

এই সব কয়টা কেসে কিন্তু কেউ জানবে না তোমার পকেটে কতো টাকা আছে, তুমি কোন কলেজে পড়াশোনা করেছো, কোন ডিগ্রী নিয়ে পাশ করেছো, জানবে না তুমি কতো ভালো জব করো এরা  কিন্তু কিছুই জানবে না এসব।

জনপ্রিয় হওয়ার উপায় কিভাবে একজন ভালো মানুষ হওয়া যায় নিজেকে আপডেট করার উপায়

তাহলে তারা কী জানবে? তারা যখনি প্রথম ঝটকায় তোমাকে দেখে নিবে তখনি ওরা ঠিক করে নিবে তোমার সাথে ঐ লোকটার ব্যবহার কেমন হবে। এবং যদি আমরা নিজেদেরকে উন্নত এর দিকে নিয়ে যেতে চাই যেটা আমাদেরকে  স্কুল শেখায় না যেটা আমাদের এই পোস্টে শেখানো হচ্ছে। 

যদি আমরা নিজেরদেরকে পরিবর্তন এর দিকে নিয়ে যেতে চাই তাহলে আমাদের সবার আগে কী করতে হবে?  সবার আগে আমাদের Outlooks এর ওপর কাজ করতে হবে। What's outlook? মানে আমাদের বাহ্যিক এর৷ ওপর কাজ করতে হবে।

নিজেকে আপডেট করার কিছু উপায়ঃ

১. পোশাকঃ

লজ্জা নিবারণ করার জন্য পরি।Outlook এর সবচেয়ে বড় example হলো আমাদের পোশাক। আমাদের dress up.পোশাক আমরা পরি লজ্জা নিবারণ করার জন্য। কিন্তু সবথেকে বড় বিষয় হলো কোন পোশাক আমরা পরি। 

দেখবে তোমার কিছু পোশাক আছে যেগুলো পরে রাস্তায় বের হলে তোমার নিজেকে অনেক বেশি confident মনে হয়। আবার কিছু পোশাক আছে যেগুলো তুমি পরতে চাও না। 

যেগুলো পরলে তোমার মনে হয় আমাকে বোধ হয় বাজে লাগছে। তাহলে বুঝতে পারছো পোশাকের সাথে confidence level ওতোপ্রোতোভাবে জড়িত।

 

নিজেকে পরিবর্তন করার সহজ উপায়।

যদি তুমি (নিজেকে পরিবর্তন) এর দিকে নিয়ে যেতে চাও তাহলে তোমার যে পোশাক আছে তা ইস্ত্রি করে পরো। ইস্ত্রি করতে হয়তো একটু খরচ হবে কিন্তু ইস্ত্রি করা জামা যদি তুমি পরো, বাইরে যাও তাহলে তোমাকে রাজার মতো লাগবে। তোমার মনে কিছু একটা পরেছো confidence level up হয়ে যাবে। 

তোমার কোনো বন্ধু একটা জামা কিনেছে তা দেখে তুমি জামা কিনো না। যে জামাটা তোমার সাথে shut করে তোমাকে fit করে সেই জামাটাই পরো। এগুলো যদি ঠিক রাখো প্রথমে বাহ্যিক দিক থেকে তোমাকে ভালো রাখতে হবে। 

তার জন্য তোমার dress up কে একদম perfect করতে হবে। কেউ একটা জামা কিনে নিয়েছে আমার বন্ধু একটা জামা কিনেছে আমাকেও কিনতে হবে ওরকম নয়।

অবশ্যই পড়ুন-

অনেককে আমি দেখেছি অনেক ছেলেদেরকে আমি দেখেছি যারা স্যান্ডগেন্জি পরে না এবং তারা যখন রাস্তা দিয়ে হাঁটছে তাদের পিঠ পুরো একদম ঘেমে গেছে এবং জামাটা পুরো ভিজে গেছে এগুলো যেন না হয়।গা থেকে যদি বাজে গন্ধ বের হয় তাহলে কেউ পাশে আসবে না।

তো নিজেকে সবসময় পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে।ভেতরে স্যান্ডগেন্জি পরার অভ্যাস করো। যাদের এই অভ্যাস নেই আজ থেকে শুরু করে দাও। হাতে একটা ঘড়ি পরার চেষ্টা করো। নিজের সামর্থ্য অনুযায়ী কমদামী একটা ঘড়ি কিনো তবুও ঘড়ি পরার চেষ্টা করো। 

বুঝলে,গলায় হাড়ফাড় ওসব পরতে হবে না। Just dress যেন একটু ফিটফাট হয়,নিজের dress টা যেন কুচকানো না হয়, ভেতরে স্যান্ডগেন্জি যেন পরা হয়, হাতে একটা ঘড়ি আর পকেটে একটা রুমাল যেন বাইরে কারো সাথে প্রথমবার দেখা করতে গেছো সেখানে গিয়ে একটা হাঁচি পরেছে হাত দিয়ে নাকটা মুছে নিলে এগুলো যেন না হয়। 

নিজেকে পরিবর্তন এর পথে যদি নিয়ে যেতে হয় যদি একজন perfect gentleman বা gentlewoman হওয়ার চেষ্টা করো তোমারা তাহলে এই জিনিসটাকে সবার প্রথমে avoid করতে হবে। আর এগুলো ছিল 

আমাদের পোস্টের প্রথম tips কারণ পোশাকের সাথে আমাদের confidence ওতপ্রোতভাবে জড়িত। ভালো পোশাক পরবে confidence level up হবে, এগুলো ফলো করলে অবশ্যই নিজেকে পরিবর্তন করতে পারবা

২.সময়ের গুরুত্ব দিতে হবেঃ

যদি তুমি নিজেকে আপডেট করার এর পথে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাও তাহলে তোমাকে সবার আগে time ঠিক করতে হবে। time কে maintain করতে হবে, সময় এর ওপর তোমার প্রভাব বিস্তার করতে হবে। সময় যেন তোমার ওপর প্রভাব বিস্তার করতে না পারে। তুমি যেন সময় এর ওপর প্রভাব বিস্তার করো।

নিজেকে পরিবর্তন করার সহজ উপায়।

সময় তোমার মালিক নয়, তুমি সময় এর মালিক ,সময় কিন্তু তোমার জন্য অপেক্ষা করবে না। তোমাকে কিন্তু সময়কে নিজের মতো করে সাজিয়ে নিতে হবে। একজন gentleman একজন perfect man যে মানুষ ipnerfect নয় যে মানুষ ফালতু বকে না সে ধরনের মানুষদের সবচেয়ে বড় কোয়ালিটি হলো তারা time maintain করে সবসময়।

অবশ্যই পড়ুন-

ধরো আমি তোমাকে বললাম তোমার সাথে আমি বিকাল চারটায় দেখা করতে আসবো দরকার হলে আমি চারটা বাজার পাঁচ মিনিট আগে পৌঁছে যাবো কিন্তু চারটা বাজার পাঁচ মিনিট পরে গিয়ে পৌঁছাবো না। তো time maintain গুরুত্বপূর্ণ। 

নিজের কথার দাম রাখা সময় এর দাম রাখা এগুলো একজন perfect মানুষের জীবনের সবচেয়ে বড় অস্ত্র, তোমার জীবনের সবচেয়ে বড় ঢাল তাই আজ থেকে সবসময় চেষ্টা করবে নিজের time কে maintain করার নিজের কথার যে কথা তুমি লোককে দাও, তাহলে দেখবা নিজেকে অনেকটা পরিবর্তন করে ফেলেছ তুমি।

৩.নিজের কথার দামঃ

জীবন বদলানোর জন্য নিজের কথার দাম এবং দামের থেকে একটু সুন্দর করে ব্যাপারটাকে গুছিয়ে বলা যায় তাহলে হচ্ছে মানষকে না বলতে শিখো। কী বলতে শিখতে হবে?না বলতে? তোমাদের সবথেকে বড় সমস্যাটা কী জানো তোমরা না বলতে জানো না।

নিজেকে পরিবর্তন করার সহজ উপায়।

না বলতে জানতে হবে, কেউ একটা invite করার পর তুমি কী করছো যে, আরে ভাই একদম ঠিক invite এ যাওয়ার দিন বা যাওয়ার আগের দিন ফোন করে বলছো যে,আমি যাইতে পারবো না কারণ আমার অমুকের তো শরীর খারাপ হয়েছে আমার অমুক হসপিটালে ভর্তি আমার অমুক ওখানে আছে আমার পেট ব্যথা, পেট খারাপ এসমস্ত বলে তুমি কী করো যে আমি যাবো না। 

অথচ এগুলো একটা সত্যি কারণ নয় পুরোটাই মিথ্যা সত্য কথা হলো তোমার লজ্জা লাগছে তোমার যেতে ইচ্ছে করছে না। তোমার খুব আলস্য লাগছে এবং দেখো কোথাও যদি কথা দাও আমি যাবো আমি থাকবো তাহলে সবসময় তোমার কথা রাখবে নিজের কথার দামকে রাখার চেষ্টা করবে।

যদি কাউকে কথা কথা দাও কোনো দিনও দিয়েছো তাহলে নিজের কথা থাকে কখনো সরিয়ে আসবে না নিজের কথা সবসময় রাখবে। যদি নিজেকে perfect বানাতে চাও তাহলে কিন্তু এই জায়গাটাতে খেয়াল রাখতে হবে।

৪.বেশি ছ্যাবলা হলে চলবে নাঃ

কিছু কিছু মানুষ যারা সব জায়গায় এমন ছ্যাবলামো করে হে হে করে দাঁত কেলাতে থাকে একটা সময় গিয়ে তাকে Irritated মনে হয়। আবার দ্বিতীয় বিষয় বেশি আবার সব জায়গায় গিয়ে জ্ঞান করলে হবে না। 

নিজেকে পরিবর্তন করার সহজ উপায়।

এরকম কিছু মানুষকে আমি চিনি আমারও চেনা আছে যারা সব জায়গায় গিয়ে তাদের জ্ঞান বিতরণ করে এবং কিছু সময় হয়তো চুপচাপ শুনি কিন্তু তাকে বেশিরভাগ মানুষই পছন্দ করে না। এইজন্য জ্ঞান বিতরণ করবে কিন্তু যতটুকু প্রয়োজন ততটুকুই তার বেশি না। 

ঠিক এমন ভাবে মনে রাখতে হবে তোমার যেমন বেশিক্ষণ জ্ঞান শুনতে ভালো লাগে না তেমনি অন্য কাউকেও ভালো লাগবে না তোমার থেকে বেশিক্ষণ জ্ঞান শুনতে। 

তাই কাউকে বেশিক্ষণ জ্ঞান বিতরণ করবে না অল্প সময়ের মধ্যে অল্প কথায় জ্ঞান দিয়ে ছেরে দিবে। ঠিক আছে আর ছ্যাবলামো একদম নয়।অল্প অল্প করা যেতে পারে।তাহলে দেখবা তুমি নিজেকে আপডেট করে ফেলেছে।

৫.নিজের ভ্যালু তৈরি করুনঃ

টা হলো আমাদের গোটা জীবনে আমরা নিজেদেরকে কোন জায়গায় তৈরী করব। সেটা পুরোটাই নির্ভর করছে আমাদের ওপর। একরা অদ্ভুত ব্যাপার বলি, আটঘন্টা কাজ করার জন্য একটা মানুষ অফিসে দশ হাজার টাকা sellery পায় আবার আধঘন্টা কাজ করার জন্য অন্য মানুষ সেই অফিসেই ২৫ হাজার টাকা sellery পান আবার এই আধঘন্টা কাজ করার জন্য একজন মানুষ ঐ অফিসেই একলক্ষ টাকা sellery পান।

নিজেকে পরিবর্তন করার সহজ উপায়।

এরথেকে বোঝা যাচ্ছে time এর ওপর সবকিছু নির্ভরশীল নয়। নির্ভর করে তোমার knowledge এর ওপর। তিনজনই আধঘন্টা কাজ করেন কিন্তু একজন পায় একলক্ষ টাকা,একজন পায় ২৫ হাজার টাকা আর একজন পায় ১০-১৫ টাকা। 

কেনো,তার কারণ যে,একলক্ষ টাকা যে আয় করে তার knowledge টা বেশি। তাই সবসময় মাথায় রাখবে তোমার knowledge কে gather নিজের knowledge কে gain করতে হবে। তুমি কী পরছো তুমি কী দেখছো তুমি কী শুনছো এই তিনটা জিনিসকে সবসময় better রাখার চেষ্টা  করো। 

নিজের YouTube এর news feed খুলে একবার scroll করে দেখো কী কী ভিডিও তোমার news feed এ আসছে, যদি এমন এমন ভিডিও তোমার news feed এ আছে যেগুলো তোমার জীবনে কোনভাবেই উন্নতির পথে নিয়ে যাচ্ছে না তাহলে বুঝে নিতে হবে তুমি already অবনতির পিছনে চলে গেছো। 

আর যদি দেখো এমন ভিডিও আসছে যেগুলো সত্যিকারে তোমার জীবনে কোনো কাজে লাগতে চলেছে তাহলে বুঝবে জীবনে অনেক সামনের দিকে এগিয়ে যাবে তুমি। সবসময় পড়ার habit করো আর YouTube এ ভালো ভালো ভিডিও দেখার চেষ্টা করো। এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফ্রী এখন ৫০০ টাকা রিচার্জেই আমরা খুব সহজেই তিনমাস ধরে ইন্টারনেট করতে পারি।

নিচে জীবন পরিবর্তন করার জন্য কিছু ইউটিউব চ্যানেলের লিংক দেওয়া হল-

উপরের দেওয়া ইউটিউব চ্যানেলের লিংক গুলো ফলো করলে আপনার লাইফ স্টাইল অনেকটাই পরিবর্তন করতে সক্ষম হবেন

তো এখন ইন্টারনেটে এতো সস্তা এবং ফ্রী যার ফলে knowledge ও সস্তা হয়ে গেছে। তার জন্য যতো পারো নিজের knowledge gain করো তাহলে আধঘন্টা কাজ করে এককক্ষ টাকা কামাই করতে পারবে, আর যদি নিজের knowledge ব্যবহার না করো তাহলে আধঘন্টা কাজ করে ১০ হাজার টাকা রোজগার করতে হবে।

আমাদের শেষ কথাঃ

বন্ধুরা, আশা করি নিজেকে পরিবর্তন করার সহজ উপায় আপনি বুঝতে পারছেন, পোস্টটি ভালো লাগল বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করতে ভুলবেন না। আমাদের (অনলাইন কাজ) ওয়েবসাইট সর্বশেষ আপডেট পেতে আমাদের সাইটটি সাবস্ক্রাইব করতে পারেন নতুন নতুন সব পোস্ট পাওয়ার জন্য ভালো থাকবেন।

📝রাইটারঃ সুমাইয়া জান্নাত রিয়া

📃Onlinekaj.com

By commenting you acknowledge acceptance of Whatisloved.com-Terms and Conditions

Post a Comment

By commenting you acknowledge acceptance of Whatisloved.com-Terms and Conditions

Post a Comment (0)

Previous Post Next Post