ধনী হওয়ার ৭টি গোপন সুত্র-মোটিভেশনাল

হ্যালো বন্ধুরা “আমরা প্রত্যেকেই আমাদের life এ একজন ধনী ব্যক্তি হতে চাই”। অর্থ,টাকা-পয়সা,সম্পত্তি আমাদের সবারই একটা personal need।(টাকা আমাদের জীবনের সমস্ত চাহিদা মেটাতে পারে)।

আর এই টাকার অভাবে অনেকে অনেক সময় খেতে না পেরে কিংবা বিনা চিকিৎসায় মারা যান।তাই যদি আমরা ধনী হতে পারি যদি আমাদের কাছে যথেষ্ট টাকা পয়সা থাকে life এ servant করার জন্য তাহলে আমাদের life টা অনেকটাই easy হয়ে যায়।

একারণেই ধনী হওয়ার কোনো বয়স হয় না।এমন কোনো কথা নেই যে আপনি অনেক  ছোট বা আপনার বয়স অনেক বেশি তাই আপনি ধনী হতে পারবেন না।আর একটু ভালো করে লক্ষ্য করলেই আপনি নিজেও দেখতে পাবেন যে আমাদের সমাজে প্রত্যেকেই কিন্তু অর্থ উপার্জন করার জন্যই পরিশ্রম করে থাকে সে বর্তমানের জন্য বা ভবিষ্যতের জন্যই হোক।

ধনী হওয়ার কার্যকর উপায়, ধনী হওয়ার মন্ত্র

যেমন যদি আপনি একজন students হয়ে থাকেন তাহলে আপনি বর্তমানে পড়াশোনা নিয়ে পরিশ্রম করছেন যাতে ভবিষ্যতে ভালো কোনো কাজ করে বড় হতে পারেন,ধনী হতে পারেন। 

ধনী হওয়ার কিছু গুরুত্বপূর্ণ সুত্র?

আপনার পিতা-মাতা আপনার পিছনে টাকা খরচ করছেন যাতে ভবিষ্যতে আপনাকে এবং তাদেরকে কোনো অভাব face করতে না হয়।এবং আপনি যদি একজন employers ও হয়ে থাকেন তাও আপনি অন্য কারো কোম্পানি বা অফিসে জব করছেন যাতে আপনাকে কখনোই আর্থিক সমস্যায় পরতে না হয়।

অর্থাৎ এর থেকে এটা তো ক্লেয়ার হলো যে আমরা তো অর্থ উপার্জন বা ধনী হওয়ার জন্যই পরিশ্রম করছি।so “আপনি students হয়ে থাকুন কিংবা employs আপনার বয়স ২০ হোক,৩০ হোক বা ৪০ আজকের এই পোস্টটি আপনার জীবনে আর্থিক উন্নতির জন্য অনেক বেশি সাহায্য করবে”।

1.Stop procrastination:

procrastination এর অর্থ হলো কোনো কাজকে কাল থাকে করবো বা পরে করবো বলে রেখে দেওয়া”।যেমন ধরুন আপনারা যারা এই পোস্টটিকে দেখছেন সম্পূর্ণ পোস্ট পড়ার পর আপনাদের মধ্যে maximum লোকই মনে মনে ভাববেন যে হ্যাঁ পোস্টটিতে তো ভালোই যুক্তি আছে আমি কাল থেকেই এই টিপস গুলোকে ফলো করবো।

অর্থাৎ আপনি হাতে আরো সময় বলে ভবিষ্যতের জন্য কাজটিকে ফেলে রাখলেন।আর মজার ব্যাপার তো এটাই আপনার ঐ কালকের দিনটি আর কখনোই আসবে না।আর এভাবেই এক দুদিন পর আপনার ব্রেণ থেকে এটাই বেরিয়ে যাবে যে আপনি এই পোস্টটি পড়ে কিছু শিখেছিলেন।

procrastination এর থেকে বড় example হয়তো এই মুহুর্তে এর থেকে ভালো আর কিছুই হয় না।তো যাই হোক না কেনো আমাদের life এ ধনী হওয়াকেও নিয়ে আমরা এই ভুলটি করে ফেলি।যারা students বা যাদের ক্যারিয়ার সবে শুরু করেছে তাদের প্রায় প্রত্যেকের বলতে শোনা যায় আরে ভাই কোনো ব্যাপার না?

ধনী হওয়ার জন্য এখানো তো প্রচুর সময় আসে,এখন তো মাস্তি করার সময় আগে নিজেরআসা গুলোকে তো মিটিয়ে নিই এখন করবো না তো এসব বুড়ো বয়সে করবো।

টাকা আমরা ভবিষ্যতে তৈরি করে নিতে পারবো।এমনটাই কিন্তু তাদের প্রধান চিন্তা ভাবনা হয় যার কারণে তারা কখনোই saving বা investment করে উঠতে পারে না।

তাই আপনার মাথা থেকে পরে করবো,এখনো অনেক টাইম আছে এসব কথাগুলিকে এখনি বের করে ফেলুন।আর এই মুহুর্ত থেকেই নিজের কাজের ওপর focus করুন।

নির্দিষ্ট টার্গেট সেট করুন যে আগামী ১০ বছরের মধ্যে আমাকে ধনী হতে হবে এবং তার জন্য আমি “আমার বেস্ট টা” লাগিয়ে দিবো। এর ফলে আপনার স্কিল এবং ইনকাম বাড়তেই থাকবে।

আপনার ব্রেণ আরো বেশি কার্যশীল হবে।আর ইনকাম বৃদ্ধি পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে যত বেশি সম্ভব saving এবং investment ও শুরু করুন।কারণ যত তাড়াতাড়ি আপনি টাকা save করে invest করা শুরু করবেন ততো তাড়াতাড়ি আপনি আপনার life এ একজন ধনী ব্যক্তি হয়ে উঠতে পারবেন।

2.Accept that there is no magic:

আপনাদের মধ্যে বেশির ভাগ মানুষই হয়তো ধনী হওয়ার কোনো বিশেষ ফর্মুলা জানার জন্য আমাদের পোস্টটি পরছেন কিন্তু অনেকেই মনে করেন যে তারা কোনো এক গোপন,অলৌকিকে শক্তি বা জাদুর মাধ্যমে রাতারাতি ধনী হয়ে যেতে পারবেন।

আর এজন্যই তারা always ধনী হওয়ার কোনো না কোনো short cart রাস্তা খুজতে থাকেন।তাই আপনার ধারণাটাও যদি এমনটা হয়ে থাকে তাহলে আমি আপনাদেরকে এটাই বলবো যে এই মহাবিশ্বে magic এবং ধনী বা সফল হওয়ার কোনো short cart হয় না।

তাই আপনি যদি সত্যি একজন ধনী ব্যক্তি হতে চান তাহলে আজ থেকেই তার প্রস্তুতি শুরু করে ফেলুন এবং অর্থ উপার্জনের জন্য জেনুইন আইডিয়া ভাবতে থাকুন।

আর সবথেকে important হলো সেই আইডিয়াটির ওপর action নিন কারণ আমরা আমাদের ব্রেণে always কিছু না কিছু আইডিয়া নিয়ে তো ভাবতেই থাকি।কিন্তু আমরা কখনোই এই আইডিয়াগুলির ওপর action নিই না যার কারণে বেশির ভাগ মানুষই সারাজীবন গরীব বা মধ্যবিত্ত হয়েই থেকে যায়।

3.Invest on  yourself:

Investment বলতে আমরা সবাই সাধারণত অন্য কোনো সংস্থা কিংবা নিজেদের business grow করার জন্য টাকা বিনিময় করাকেই ভাবি কিন্তু যে সমস্ত ব্যক্তিরা নিজেদের চেষ্টায় কোটিপতি হয়ে যান তারা always নিজেদের ইনকামের একটা নির্দিষ্ট অংশ নিজেদের জন্য invest করেন।

এখন এই নিজেদের জন্য invest টা হয়তো আপনার কাছে ঠিক ক্লিয়ার হলো না রাইট। আপনাদের মধ্যে অধিকাংশ মানুষই হয়তো নিজের জন্য invest করা বলতে নিজের সমস্ত চাহিদা পূরণ বা শখ পূরণের কথা ভাবছেন।

হ্যাঁ সেটা তো ধনী হওয়ার পর এমনিতেই হবে but আমি এখানে নিজের ওপর invest করার অর্থ এটাই বুঝাতে চাইছি যে নিজের স্কিল বৃদ্ধি করা বা নিজেকে develop করা।

যেমন যদি আপনার business এ interest থাকে তাহলে অবশ্যই আপনার কাস্টমার management এবং মার্কেটিং এর ওপর skill improve করা উচিত।Software এর ওপর interest থাকলে computer language এ স্কিল improve করা উচিত।

এছাড়াও যেকোনো ফিল্ড এর জন্যই আপনার commination skill,spoken English,Accounts,Fiance প্রভৃতির ওপরও invest করতে পারেন।

4.Create a budget:

কিছু কিছু মানুষ এমনও রয়েছেন যারা প্রতিমাসে এতো টাকা ইনকাম করেন যা দিয়ে তারা long term এ সহজেই ধনী হতে পারে।কিন্তু মাসের শেষে তাদের হাতে কোনো টাকাই থাকে না।অর্থাৎ তাদের টাকার অভাবও দেখা দেয়।

যারা কারণ হলো তারা তাদের সমস্ত টাকা অপ্রয়োজনীয় expense এর পেছনে খরচ করে ফেলে।তাদের জন্য এটাই বলবো যে কোনো products কেনার আগে always নিজের কাছে প্রশ্ন করুন যে সত্যিই কী আপনার সেই products টির প্রয়োজন রয়েছে।

যদি আপনি নিজেই confused থাকেন তাহলে মাএ ১৫-৩০ দিন অপেক্ষা করুন আর তারপরেও যদি আপনার মনে হয় যে ঐ জিনিসটি আপনার সত্যিই দরকার তাহলে কিনে ফেলুন।আর যদি সেটি প্রয়োজন না হয়ে থাকে তাহলে আপনি এমনিতে সেই জিনিসটি সম্পর্কে ভুলে যাবেন।

এছাড়াও এটা খেয়াল রাখুন যে কোথায় আপনার অপ্রয়োজনীয় extra খরচ হচ্ছে এবং একটি বাজেট লিস্টও অবশ্যই তৈরি করে ফেলুন।

5.Pay down your all debt:

Savings এবং invest process শুরু করার আগে আপনাকে recommend করবো যদি আপনি কোনো ধার বা লোন নিয়ে থাকেন তাহলে সেগুলিকে আগো শোধ করে ফেলুন।

আর always চেষ্টা করুন নতুন কোনো লোনে না জড়িয়ে পরা।কারণ লোন শোধ করার চিন্তা থাকলে আপনি শুধু একজন কর্মচারীর মতোই কাজ করতে থাকবেন।

আর আপনার টার্গেট হবে যত দ্রুত সম্ভব আপনার লোনটিকে শোধ করা এবং যখন আপনি এ লোন শোধ করে ফেলবেন তখন আবার আপনার ইচ্ছে করবে আরো বড় লোন নেওয়ার।

আর এভাবে আপনি কখনোই টাকা save বা investment করতে পারবেন না।কিন্তু যদি আপনার মাথায় কোনো লোনের প্রেশার না থাকে তাহলে আপনি savings এবং investment এর পাশাপাশি আরো নতুন নতুন ইনকাম সোর্স খোজার চেষ্টাও করতে থাকবেন।আপনার মাথায় অনেক নতুন আইডিয়াও আসতে থাকবে।

6.Diversify:

ওয়ারেন বাফেট যিনি পৃথিবীর একজন অন্যতম শিষ্য ধনী এবং পৃথিবীর একজন সফল investor।তার মতে আপনার savings এর সম্পূর্ণ amount কখনোই একটি plan এ invest করা উচিত নয়।

যাতে করে যদি আপনার কোনো investment plan এ লোসও হয়ে থাকে তাহলে যেনো অন্য প্ল্যানগুলো থেকে সেটা পুষিয়ে যায়।তাই আপনার total savings amount টি একি সঙ্গে invest না করে আলাদা আলাদা জায়গায় invest করুন।

এর ফলে আপনি এটাও জানতে পারবেন যে exactly কোন প্ল্যানটি থেকে আপনার সবথেকে বেশি লাভ আসছে আর কোথায় লস হচ্ছে এবং এই লস আর লাভের details থেকে আপনি পরবর্তীকালে আরো সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে শিখবেন যে কোথায় invest করা উচিত আর কোথায় নয়।যা আপনাকে একজন ভালো invester ও বানিয়ে তুলবে।

7.Take risk:

পৃথিবীর “সবথেকে সফল ও intelligent invester ওয়ারেন বাফেট এর মতে কোনো রিস্ক না নেওয়াটাট হলো আমাদের জীবনের সবথেকে বড় রিস্ক”।

অর্থাৎ যদি আপনাকে আপনার স্বপ্ন পূরণের জন্য কখনো কোনো রকম রিস্ক নিতে হয় তাহলে নির্ভয়ে action নিন নাহলে হয়তো পরবর্তীকালে আপনাকে এটা ভেবেই আপসোস করে জীবন কাটিয়ে দিতে হবে যে আমি একবার চেষ্টা কেনো করলাম না?

তখন আপনার নিজেকে নিজের কাছে ছোট মনে হবে।যখন আপনি এটা দেখবেন যে আপনার আইডিয়াটি নিয়ে কাজ করেই অন্য কোনো একজন আজ imported গাড়িতে ঘুরছে।আর যদি ঠিক টাইমে আপনি একবার চেষ্টা করে দেখতেন তাহলে আজ হয়তো ঐ ব্যক্তিটির জায়গায় আপনি থাকতেন।

যেমন যদি আপনার স্বপ্ন হয়ে থাকে business করা কিন্তু বর্তমানে আপনি ছোটোখাটো জব করছেন তাহলে অন্তত একবার business করার চেষ্টাতো করে করুন।success পেলে তো ভালো আর পেলে আপনাকে কখনো আপসোস তো করতে হবে না।

নিজেকে আপনি এটা তো অন্তত বলতে পারবেন যে হ্যাঁ আমি চেষ্টা করেছিলাম ভীতুদের মতো ভয় পেয়ে পালিয়ে তো যায়নি।তাই যতোটা  করতে পারেন করুন ভয় না পেয়ে নিজের স্বপ্নের দিকে ছোট ছোট রিস্ক নিতে থাকুন।

আমাদের শেষ কথাঃ

বন্ধুরা, আশা করি "ধনী হওয়ার গোপন সুত্র" সম্পর্কে আপনি বুঝতে পারছেন, পোস্টটি ভালো লাগল বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করতে ভুলবেন না। আমাদের (অনলাইন কাজ) ওয়েবসাইট সর্বশেষ আপডেট পেতে আমাদের সাইটটি সাবস্ক্রাইব করতে পারেন নতুন নতুন সব পোস্ট পাওয়ার জন্য ভালো থাকবেন।

📝রাইটারঃ সুমাইয়া জান্নাত রিয়াalert-success

By commenting you acknowledge acceptance of Whatisloved.com-Terms and Conditions

Post a Comment

By commenting you acknowledge acceptance of Whatisloved.com-Terms and Conditions

Post a Comment (0)

Previous Post Next Post